Kobi Biharilal Chakraborty

বিহারীলাল চক্রবর্তী (১৮৩৫-১৮৯৪)

  • বাংলায় রোমান্টিক গীতি কাব্যের প্রথম স্রষ্টা ও সার্থক পথপ্রদর্শক বিহারীলাল চক্রবর্তী।
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিহারীলাল চক্রবর্তীকে “ভোরের পাখি” রূপে অভিহিত করেন।
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিহারীলাল চক্রবর্তী সম্পর্কে বলেছেন “সে প্রত্যুষে অধিক লোক জাগে নাই এবং সাহিত্যকুঞ্জে বিচিত্র  কলগীত কূজিত হইয়া উঠে নাই। সেই ঊষালোকে কেবল একটি ভোরের পাখি সুমিষ্ট সুন্দর সুরে গান ধরিয়া ছিল। সে তাহার নিজের। ঠিক ইতিহাসের কথা বলিতে পারি না, কিন্তু আমি সেই প্রথম বাংলা কবিতায় কবির নিজের সুর শুনিলাম।”
  • বিহারীলাল চক্রবর্তীর গদ্য নিবন্ধ ‘স্বপ্নদর্শন'(১৮৫৮) তার প্রথম বই।
  • বিহারীলাল চক্রবর্তীর প্রথম কাব্যগ্রন্থের নাম ‘সংগীত শতক'(১৮৬২)।
  • বিহারীলাল চক্রবর্তী ‘বঙ্গসুন্দরী’ ১৮৭০ খ্রিস্টাব্দে রচনা করেন।
  • বিহারীলাল চক্রবর্তী ১৮৭০ খ্রিস্টাব্দের  রচনা করেন ‘নিসর্গ সন্দর্শন’।
  • বিহারীলাল চক্রবর্তী ‘বন্ধুবিয়োগ'(১৮৭০) পয়ার ছন্দে রচনা করেন।
  • ১৮৭১ খ্রিস্টাব্দে রচনা করেন ‘প্রেম প্রবাহিনী’, ‘বাউল বিংশতি'(১৮৮৭), ‘দেবরানী'(১৮৮২), ‘ধুমকেতু’১৮৯৯।
  • বিহারীলাল চক্রবর্তী ‘সারদামঙ্গল’ ১৮৭৯ রচনা করেন।
  • বিহারীলাল চক্রবর্তী ১৮৮৮ খ্রিস্টাব্দে রচনা করেন ‘সাধের আসন’।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!